পানামা পেপার্সের পর এবার প্যারাডাইস পেপার্স

Advertisement
Advertisement

ডয়চে ভেলে: কর ফাঁকি দেয়া বড়লোক এবং নামকরা রাজনীতিবদদের নতুন এক তালিকা প্রকাশ হয়েছে৷ সাংবাদিকরা ১৩ দশমিক চার মিলিয়ন গোপন নথি ঘেঁটে বের করেছেন তাদের নাম৷

জার্মানির গণমাধ্যম রবিবার জানিয়েছে যে, বিশ্বের ৬৭টি দেশের চারশ’র মতো সাংবাদিক কয়েক মিলিয়ন গোপন নথি ঘেঁটে বেশ কয়েকজন উচ্চ পর্যায়ের রাজনীতিবিদ এবং বড়লোকের নাম খুঁজে পেয়েছে৷ জার্মানির স্যুড ডয়েচে সাইটুং পত্রিকা এসব গোপন নথি সংগ্রহে সক্ষম হয়৷ মূলত অফসোর ল ফার্ম অ্যাপলবাই, যেটি প্রতিষ্ঠা হয়েছিল বারমুডায়, থেকে এসব তথ্য ফাঁস হয়েছে৷ ফার্মটির বিভিন্ন জায়গায় অফিস রয়েছে৷

ফাঁস হওয়া এ সব নথির নাম দেয়া হয়েছে প্যারাডাইস পেপার্স৷ এতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মন্ত্রিসভা এবং রাশিয়ার বিভিন্ন ফার্মের মধ্যে সম্পর্কের কিছু প্রমাণও পাওয়া গেছে৷

শুধু রাজনীতিবিদরা নন, নাইক, অ্যাপল, উবার এবং ফেসবুকের মতো প্রতিষ্ঠানও করের হার কমাতে বিভিন্ন ‘শেল কোম্পানি’ ব্যবহার করছে৷ স্যুড ডয়চে সাইটুং পত্রিকায় প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, রক স্টার বোনো, ব্রিটেনের রানী এলিজাবেথ টু’সহ অনেক বরেণ্য ব্যক্তিও ব্যক্তিগত সম্পদ লুকাতে ‘অফশোর ফান্ড’ ব্যবহার করেছেন৷ এখন অবধি ৪৭টি দেশের ১২০ জনের বেশি রাজনীতিবিদের নাম নতুন তালিকায় রয়েছে৷

অর্থনীতিবিদ গার্বিয়েল স্যুখমান জার্মান পত্রিকাটিকে বলেন যে, ‘‘বিশ্বের অভিজাত ব্যক্তিরা ৭ দশমিক নয় ট্রিলিয়ন ইউরো ‘অফসোর ট্যাক্স হ্যাভেনে’ জমা করে রেখেছেন৷”

প্যারাডাইস পেপার্সের নামে প্রকাশিত এসব তথ্য যাচাই করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের আন্তর্জাতিক কনসোর্টিয়াম আইসিআইজে৷ একইসঙ্গে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম এসব তথ্য প্রকাশ করেছে৷

এতে দেখা গেছে, মার্কিন বাণিজ্য মন্ত্রী উইলবার রসের সঙ্গে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিনের ঘনিষ্ঠ মিত্রদের যোগাযোগ রয়েছে৷ স্যুড ডয়েচে সাইটুং পত্রিকায় লেখা হয়েছে, ‘‘বিলিয়নিয়ার রস রাশিয়ার সঙ্গে ব্যবসা করে অর্থ আয় করেছেন৷ আর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মন্ত্রিসভায় বসার পরও তাতে কোনো পরিবর্তন এসেছে মনে হয় না৷”

পত্রিকায় প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, রস ওসেন ফ্রেইট কোম্পানি নেভিগেটরের অন্যতম শেয়ার হোল্ডার যেটি ২০১৪ সাল থেকে রাশিয়ার এনার্জি গ্রুপ সিবুর সঙ্গে ৬৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বাণিজ্য করেছে৷ রস ছাড়াও ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ এক ডজনের বেশি মানুষের নাম প্রকাশিত তালিকায় রয়েছে বলে জানা গেছে৷