শিবালয়ে কলেজে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন ২৩ নভেম্বর

Advertisement
Advertisement

নিঞ্জন সুত্রধর, শিবালয় (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি : শিবালয় সদরউদ্দিন ডিগ্রি কলেজে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন আগামী ২৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

ওই কলেজের শিক্ষকরা জানান, শিবালয় সদরউদ্দিন ডিগ্রি কলেজ গভনিংবডি (এডহক কমিটি) শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন একটি কু-চক্রীমহন বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন ভাবে পায়তারা করছেন। এতে শিক্ষকদের মধ্যে অসন্তোষ বিরাজ করছে। জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে প্রেরিত পত্রের নির্দেশনায় জাতীয় বিশ্বদ্যিালয়ের বিধি মোতাবেক শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনের জন্য ভোটার তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে।

সাময়িক বরখাস্তকৃত অধ্যাক্ষ ড. বাসুদেব কুমার দে শিকদারসহ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক নিয়োগ প্রাপ্ত শিক্ষদের গত ২৩ আগষ্ট ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে তফশিল ও নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা করা হয়। কিন্ত একটি কু-চক্রীমহল নির্বাচনকে বন্ধ করার জন্য ওই কলেজের কিছু শিক্ষকদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভক্ত করা নিয়ে নানা অভিযোগ করছেন। যে, শিক্ষকদের ভোটার তালিকা অন্তভুক্ত করা নিয়ে অভিযোগ করা হচ্ছে তাদেরকে ওই কলেজের সাবেক কোন গভেণিংবডি তাদেরকে কোন কারন দর্শিয়ে কলেজ থেকে বহিস্কার করেননি এখন পর্যন্ত।

এখন শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনের সময় তাদেরকে ভোটার তালিকায় অন্তভুক্ত করা নিয়ে অভিযোগ করায় সচেতন মহলে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। ওই কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান জানেআলম সিদ্দিকী বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক ভোটার তালিকা করা হয়েছে। একটি কু-চক্রীমহল নির্বাচনকে বাতিল করার জন্য চেষ্টা করছেন। ওই কলেজের সহকারী অধ্যাপক বলরাম দাস বলেন, শিক্ষকদের ভোটার তালিকা বিধি সম্মত ভাবে করা হয়েছে।

ওই কলেজের ইংরেজী বিভাগের প্রধান ড.উত্তম কুমার সরকার বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক শিক্ষকদের ভোটার তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামাল মোহাম্মদ রাশেদ বলেন, শিক্ষকদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক কলেজের গভেণিংবডি নিয়োগ দিয়েছেন। কলেজের গভেণিংবডি তাদেরকে এখন পর্যন্ত কলেজ থেকে বহিস্কার করেননি।

এ কারনে বিধি মোতাবেক তাদেরকে ভোটার তালিকায় অন্তভুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া ওই কলেজের সাময়িক বরখাস্তকৃত অধ্যক্ষ ড. বাসুদেব কুমার দে শিকদাকে আদালতের আর্দেশে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। একটি কু-চক্রীমহন নির্বাচনকে বন্ধ করার জন্য পায়তারা এবং সাংবাদিকদের কাছে ভুল তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করিয়েছেন। যাদেরকে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে নিয়ম অনুযারী করা হয়েছে।