রাতে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে এক ছাত্রীকে (১২) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। আর এই অভিযোগ উঠেছে মাদ্রাসার এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। রবিবার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশে। রাজ্যের খেড়িকালান গ্রামের ঘটনা এটি।

ওই ছাত্রী পুলিশকে জানিয়েছে, রাতে হঠাৎ শব্দ পেয়ে ঘুম ভেঙে যায় তার। তখন সে দেখতে পায় তাদের বাড়িতে ঢুকে পড়েছে তারই মাদ্রাসার উর্দুর শিক্ষক শাহিদ।

কোনও শব্দ করার আগেই তার মুখে কাপড় বেঁধে তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে শাহিদ। মেয়েটির পরে ঘটনাটি বাড়িতে জানায়। এরপর অভিভাবক ও গ্রামবাসীরা শাহিদকে গণধোলাই দেয়। তবে উন্মত্ত জনতার হাত থেকে প্রাণ বাঁচিয়ে পালিয়ে যায় শাহিদ।

এদিকে সোমবার বাস ধরার জন্য অপেক্ষা করার সময় শাহিদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এসপি অবিনাশ পান্ডে জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্তে পুলিশে দুটি দল কাজ করছে। যত দ্রুত সম্ভব শাহিদের বরুদ্ধে চার্জশিট দিতে চেষ্টা চলছে।

সূত্র : এএনআই, আজকাল