রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছে চোলাই মদপান করে ৩ দিনে ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া আরও ২জন গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

তবে ভুক্তভোগীদের পরিবার মদপানে মারা যাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছে। তাদের একেকজন একেক অজুহাত দিচ্ছেন।

জানা যায়, গত সোমবার (১ জুলাই) সন্ধ্যায় হারাগাছের ধুমগড়া গ্রামের মৃত আব্বাছ আলীর ছেলে আমরুল ইসলাম (৪০), ক্যালেনটারী গ্রামের মৃত ইউনুছ আলীর ছেলে আনারুল ওরফে মেডিকেল (৪৪), একই গ্রামের চাঁন মিয়া (৩৬), মিলনবাজার গ্রামের মৃত আবদার আলীর ছেলে এজারুল ইসলাম (৩৮), সারাই কাসাইটারী গ্রামের মৃত রহিম উদ্দিনের ছেলে ফুলবাবু (৫২), একই গ্রামের ওবায়দুল (৪৭) এবং পশ্চিম পোদ্দারপাড়া গ্রামের মৃত মতিয়ার রহমানের ছেলে নুর আমিন ড্রাইভার (৪৩) হারাগাছ থানার চরচতুরা গাছবাড়ী এলাকার এক ব্যক্তির বাড়িতে গিয়ে দেশীয় চোলাই মদপান করে বাড়ি ফিরে।

পরে অতিরিক্ত চোলাই মদপানে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ওইদিন রাতেই ধুমগড়া গ্রামের আমরুল ইসলাম, মঙ্গলবার দুপুরে ক্যালেনটারী গ্রামের আনারুল ওরফে মেডিকেল নিজ বাড়িতে ও মিলনবাজার গ্রামের এজারুল ইসলাম রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায়।

এছাড়া বুধবার সন্ধ্যায় পশ্চিম পোদ্দারপাড়া গ্রামের নুর আমিন ড্রাইভার নিজ বাড়িতে এবং কাসাইটারী গ্রামের ফুলবাবু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এছাড়া কাসাইটারী গ্রামের ওবায়দুল নিজ বাড়িতে এবং ক্যালেনটারী গ্রামের চান মিয়া রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এলাকাবাসী অতিরিক্ত চোলাই মদপানে ৫জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করলেও নিহতদের পরিবার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তারা বলেন, মদপানে নয়, ব্রেইন স্ট্রোকে মৃত্যু হয়েছে।

হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (অপারেশন) রবিউল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ আসেনি। তবে ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে জানার পর চরচতুরা গাছবাড়ী এলাকায় অভিযান চালানো হয়। ঘটনার পরেই চরচতুরা গ্রামের চোলাই মদ বিক্রিতা নাজমুল গা ঢাকা দিয়েছে।